একঝাঁক কচিকাঁচার রং তুলি-আবৃত্তিতে বঙ্গবন্ধুকে স্মরণ করলো সিএমপি

একঝাঁক কচিকাঁচার দল। তারা কেউ ‘৭১ দেখেনি, দেখেনি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানেকে। তবুও রং পেন্সিল নিয়ে ‘বসে আঁকা প্রতিযোগিতায়’ তাদের কারো ছবিতে জীবন্ত হয়ে উঠেছে বঙ্গবন্ধুর মুখাবয়ব, কেউ এঁকেছে ৭ মার্চে জাতির পিতার সেই অভূতপূর্ব অঙ্গুলিহেলন। কেউ বেছে নিয়েছে মুক্তিযুদ্ধ আর কেউবা ভাষা আন্দোলন। বিষয়বস্তু যা-ই হোক না কেন, প্রতিটি ছবিতেই কোন না কোনভাবে জড়িয়ে রয়েছে সেই প্রবাদপ্রতিম ব্যক্তিত্ব।
এরপর এলো আবৃত্তি বা কবিতা পাঠ প্রতিযোগিতা। এখানেও প্রতিটি কবিতায় কী অবর্ণনীয় যত্নে, কী পরম মায়ায় তারা তুলে ধরলো জাতির পিতাকে। অথচ তারা কেউ কোনদিন দেখেনি তাঁকে!
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৮ তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে দামপাড়াস্থ মেট্রোপলিটন পুলিশ লাইন্সের মাল্টিপারপাস শেডে ঠিক এরকমই একটি আয়োজন করেছিলো চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ। সিএমপি’র উদ্যাগে আয়োজিত এই চিত্রাঙ্কন ও কবিতা আবৃত্তি প্রতিযোগিতায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মান্যবর পুলিশ কমিশনার জনাব কৃষ্ণ পদ রায়, বিপিএম (বার), পিপিএম (বার) মহোদয়।
স্বাধীনতার মহান স্থপতি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কর্মময় জীবন ও আদর্শকে বিষয়বস্তু হিসেবে বিবেচনা করে আয়োজন করা হয় এই প্রতিযোগিতাটির। সিএমপি স্কুল এন্ড কলেজে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন ক্যাটেগরিতে বিভক্ত হয়ে স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করে এই আয়োজনে।
এসময় সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) ফয়সাল মাহমুদ, পিপিএম; অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (প্রশাসন ও অর্থ) এম এ মাসুদ; অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম এন্ড অপারেশন) আ স ম মাহতাব উদ্দিন, পিপিএম-সেবা; উপ-পুলিশ কমিশনার (সদর) মোঃ আব্দুল ওয়ারীশ মহোদয়সহ পুলিশের অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ এবং সিএমপি স্কুল এন্ড কলেজের সম্মানিত শিক্ষকমন্ডলী, শিক্ষার্থীবৃন্দ ও শ্রদ্ধেয় অভিভাবকগণ উপস্থিত ছিলেন।

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on linkedin
LinkedIn
Share on email
Email

সম্পকিত খবর