কক্সবাজারে রাজনৈতিক সম্প্রীতি চান সুশীল সমাজ ও তরুণরা

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি কক্সবাজার দেশের অন্যতম পর্যটন নগরী । নানা কারণে এই অঞ্চলের গুরুত্ব বাংলাদেশে অপরিসীম, প্রয়োজনীয়তা রয়েছে এখানকার রাজনৈতিক স্থিতিশীলতারও। এ প্রেক্ষাপটে কক্সবাজারে রাজনৈতিক শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান নিশ্চিত করার পাশাপাশি রাজনৈতিক সম্প্রীতি এবং সহনশীলতা অনুশীলন করার জন্য দলগুলোর পদক্ষেপ গ্রহণের লক্ষ্যে ‘রাজনৈতিক সম্প্রীতি’ শীর্ষক সংলাপে’র আয়োজন করে মাল্টি পার্টি অ্যাডভোকেসি ফোরাম (এমএএফ)। মঙ্গলবার (১৭ অক্টোবর, ২০২৩) কক্সবাজার শহরের কলাতলী সড়কের বিচ পার্ক হোটেলে আয়োজিত এই সংলাপে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টির নেতৃবৃন্দের পাশাপাশি অংশ নেন জেলার সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, সাংবাদিক এবং যুব সংগঠনের প্রতিনিধিরা। সংলাপে কক্সবাজারে তিন দলের কাছে রাজনৈতিক সম্প্রীতি বজায় রাখতে প্রতিশ্রুতি চান সুশীল সমাজ ও তরুণরা প্রতিনিধিরা। বিশেষত একে অপরের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থাকার পাশাপাশি – নিজেদের মধ্যে যেসব দ্বন্দ্ব আছে তা নিরসনের চেষ্টা করে সকল দলের নেতাকর্মীদের নিজ দল এবং অন্য দলের নেতাকর্মীদের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থেকে বক্তব্য প্রদান করা, সবসময় একদল অন্যদল সম্পর্কে গঠনমূলক সমালোচনা করা, সভা বা সমাবেশে উচ্চানিমূলক বক্তব্য না দেওয়া, দলগুলোর সভা বা সমাবেশ নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে করা, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজ দল অন্যদের সম্পর্কে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য থেকে বিরত থাকার মতো বিষয়ে দাবি উঠে আসে সংলাপ থেকে। মাল্টিপার্টি এডভোকেসী ফোরাম-এমএএফ একটি বহুদলীয় স্বেচ্ছাসেবী রাজনৈতিক ফোরাম যা বাংলাদেশের প্রধান তিনটি রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টির তরুণ নেতাকর্মীদের নিয়ে গঠিত। ইউএসএআইডি’র অর্থায়নে ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশন্যাল বাস্তবায়িত ‘স্ট্রেনদেনিং পলিটিক্যাল ল্যান্ডস্কেপ’ প্রকল্পের আওতায় দলগুলোর পলিটিক্যাল ফেলো ও মাস্টার ট্রেইনারদের সমন্বয়ে এমএএফ কক্সবাজার ইউনিট পরিচালিত হচ্ছে।

এমএএফ কক্সবাজারের প্রেসিডেন্ট কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও রেজাউল করিম এর সভাপতিত্বে, মাল্টিপার্টি এডভোকেসী ফোরাম কক্সবাজারের সেক্রেটারী ও বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি কক্সবাজার জেলার দপ্তর সম্পাদক ইউসুফ বদরীর উপস্থিতিতে এ সংলাপ অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ডেমোক্রেসী ইন্টারন্যাশনাল চট্টগ্রাম অঞ্চলের সিনিয়র রিজিওনাল ম্যানেজার মোঃ সদরুল আমিন। এসময় এমএএফ কক্সবাজারের কার্যক্রম তুলে ধরেন ফোরামের সাধারণ সম্পাদক ইউসুফ বদরী । সংলাপ কার্যক্রম পরিচালনা করেন ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনাল চট্টগ্রামে অঞ্চলের রিজিওনাল কো-অর্ডিনেটর মোহাম্মদ ওবায়দুর রহমান । সংলাপে অংশ গ্রহনকারীরা পাঁচটি দলে বিভক্ত হয়ে কক্সবাজারের রাজনৈতিক সম্প্রীতি বিনির্মাণে ও রাজনৈতিক সম্প্রীতি জোরদার করতে রাজনৈতিক দলগুলি কি কি উদ্যোগ নিতে পারে, রাজনৈতিক সম্প্রীতি জোরদার করতে মাল্টিপার্টি অ্যাডভোকেসি ফোরাম কি কি উদ্যোগ নিতে পারে, এতে নাগরিক সমাজ ও গণমাধ্যম কী ভুমিকা রাখতে পারে, তা নিয়ে দলগত আলোচনা উপস্থাপন করা হয়। এ থেকে যে কর্মসূচী উঠে আসে তা হলো কক্সবাজারের রাজনৈতিক সম্প্রীতি অক্ষুন্ন রাখার লক্ষ্যে দলগুলোর নীতি নির্ধারকদের দৃষ্টি আকর্ষনের জন্য গণস্বাক্ষর সংগ্রহ করে দলগুলোর সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নিকট দাবি আকারে প্রদান করা।

অনুষ্ঠানে সমাপনী পর্বে বক্তব্য রাখেন এমএএফ কক্সবাজারের প্রেসিডেন্ট কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি রেজাউল করিম, মাল্টিপার্টি এডভোকেসী ফোরাম কক্সবাজারের সেক্রেটারী ও বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি কক্সবাজার জেলার দপ্তর সম্পাদক ইউসুফ বদরী, পেকুয়া উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান এডভোকেট উম্মে কুলসুম, ক্যাব এর কেন্দ্রীয় ভাইস প্রেসিডেন্ট এস এম নাজের হোসাইন, সিভিল সোসাইটি প্রতিনিধি পালস্ বাংলাদেশের প্রধান নির্বাহী সাইফুল ইসলাম চৌধুরী কলিম, সুজনের সহসভাপতি অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক হোসনেয়ারা বেগম, সাংবাদিক প্রতিনিধি মাহাবুবুর রহমান, , যুব প্রতিনিধি ফেলো গাজী নাজমুল হোসাইন, ফেলো সোহায়লা জান্নাত রিসতা, কক্সবাজার যুব রেড ক্রিসেন্টের উপ যুব প্রধান আরমানুল করিম, বিএনসিসির আজিজ মিয়া, যুব সদস্য নাদিয়া হোসাইন সুরভী প্রমূখ। এ নাগরিক সংলাপে কক্সবাজারের বিভিন্ন আর্থ-সামাজিক অবস্থানে থাকা মাল্টিপার্টি এডভোকেসি ফোরামের সদস্যবৃন্দ, সাংবাদিক, শিক্ষক, এনজিও প্রতিনিধি, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, বিএনসিসি, লিও, গার্লস গাইড, যুব রেডক্রিসেন্ট,স্কাউট, যুব প্রতিনিধি ,স্বেচ্ছাসেবক প্রতিনিধি অংশগ্রহন করেন ।

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on linkedin
LinkedIn
Share on email
Email

সম্পকিত খবর