চাঁদাবাজদের জায়গা চট্টগ্রাম শহরে হবে না -সিএমপি কমিশনার

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) কমিশনার কৃষ্ণ পদ রায় বলেছেন, চাঁদাবাজদের জায়গা চট্টগ্রাম শহরে হবে না। জোর জবরদস্তি করে কারো কাছ থেকে আর্থিক মুনাফা নেওয়া যাবে না। বৈধভাবে ব্যবসা করেন-এক্ষেত্রে সবার জন্য সহযোগিতা উন্মুক্ত থাকবে।
তিনি বলেন, রেজিস্ট্রেশনবিহীন কোনো গাড়ি চট্টগ্রাম নগরীতে চলতে পারবে না। নগরজীবনে জনস্বার্থে অনেক কিছু মানুষকে মেনে নিতে হয়। বিদ্যমান কাঠামো, অতিরিক্ত জনসংখ্যা ও পরিবহনের কারণে পুলিশকে বাধ্য হয়ে অনেক সময় নানা সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে হয় যা অনেকের কাছে পছন্দের না ও হতে পারে। তবে দেশ ও জাতির স্বার্থে অনেককিছু আমাদের বিবেচনায় আনা উচিত।
তিনি আরো বলেন, পুলিশ এবং সাংবাদিকদের পারস্পরিক সম্পর্ক অনিবার্য-তা অস্বীকার করার সুযোগ নেই। পুলিশ বিভাগে মানুষের কল্যাণে কাজ করার সুযোগ অনেক বেশি। এ কাজের মূল শক্তি গণমাধ্যম। গণমাধ্যম পুলিশকে এগিয়ে যাবার পথ বাতলিয়ে দেয়। মিডিয়ার অনেক ভূমিকা পুলিশের প্রতি মানুষের ইতিবাচক ধারণা বৃদ্ধি করে। গত এক বছরে চট্টগ্রামের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির তুলনামূলক চিত্র অনেক ভালো। সকলের সহযোগিতায় আরো ভালো কিছু করার মানসিকতা সিএমপি’র রয়েছে।
৫ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার প্রেস ক্লাবের পিএইচপি ভিআইপি লাউঞ্জে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে সিএমপি কমিশনার কৃষ্ণ পদ রায় এসব কথা বলেন।
চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সভাপতি সালাহ্উদ্দিন মো. রেজার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক দেবদুলাল ভৌমিক।
সভাপতির বক্তব্যে সালাহউদ্দিন মো. রেজা বলেন, ভালো কাজের মাধ্যমে মানুষের মন জয় করাই পুলিশের সার্থকতা। সুন্দর ও শান্তিপূর্ণ সমাজব্যবস্থার ক্ষেত্রে পুলিশের রয়েছে বিশেষ ভূমিকা। দিনদিন নগরীতে মানুষের সংখ্যা বাড়ার পাশাপাশি অপরাধের ধরণেও পরিবর্তন আসছে। পুলিশও নিত্যনতুন চিন্তা-চেতনা এবং কর্মপন্থার মাধ্যমে তা মোকাবেলা করে যাচ্ছে।
সাধারণ সম্পাদক দেবদুলাল ভৌমিক স্বাগত বক্তব্যে বলেন, পুলিশের সাথে সাংবাদিকদের সম্পর্ক প্রাচীন। তাদের দায়িত্বশীল ভূমিকা সমৃদ্ধ দেশ গড়ার ক্ষেত্রে বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ। পুলিশের ব্যাপারে মানুষের ধ্যান-ধারনা দিনদিন পরিবর্তন হচ্ছে। পুলিশের কর্মকাণ্ড এবং চিন্তাচেতনা বর্তমানে আরো উন্নত এবং আধুনিক।
যুগ্ম সম্পাদক শহীদুল্লাহ শাহরিয়ারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি আলহাজ আলী আব্বাস, প্রেস ক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি চৌধুরী ফরিদ, প্রেস ক্লাবের কার্যকরী সদস্য জসীম চৌধুরী সবুজ, মোয়াজ্জেমুল হক, মঞ্জুরুল আলম মঞ্জু, সিইউজে’র সাবেক সভাপতি অঞ্জন কুমার সেন, সাংবাদিক জাহিদুল করিম কচি, পংকজ কুমার দস্তিদার, নুরুল আলম, দেবপ্রসাদ দাস দেবু, আসিফ সিরাজ প্রমুখ।
সিএমপি কমিশনারকে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সম্মাননা স্মারক প্রদান ও ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়।
এ সময় চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের ক্রীড়া সম্পাদক এম সরওয়ারুল আলম সোহেল, গ্রন্থাগার সম্পাদক কুতুব উদ্দিন, সমাজসেবা ও আপ্যায়ন সম্পাদক আল রাহমান, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক খোরশেদুল আলম শামীম, কার্যকরী সদস্য মো. আইয়ুব আলী, সিএমপি’র উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক-উত্তর) আকরামুল হাসান, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (পিআর) স্পিনা রানী প্রামাণিক, সহকারী পুলিশ কমিশনার (কোতোয়ালী জোন) অতনু চক্রবর্তী, সহকারী পুলিশ কমিশনার ও স্টাফ অফিসার টু পুলিশ কমিশনার সব্যসাচী মজুমদার, সহকারী পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক-দক্ষিণ) মাহমুদুল হাসান, কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহেদুল কবীর’সহ প্রেস ক্লাবের সদস্য, পুলিশ সদস্য এবং বিভিন্ন প্রিন্ট, ইলেকট্রনিক ও অনলাইন মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on linkedin
LinkedIn
Share on email
Email

সম্পকিত খবর