তদন্ত কর্মকর্তা এসআইকে ‘ফাঁসাতে’কথিত শ্রমিকনেতার পাঁয়তারা

গত ২৬ জুন চট্টগ্রাম অটোরিকশা-অটোটেম্পো শ্রমিক লীগের অবৈধ দখলদার কমিটির কথিত সাধারণ সম্পাদক মো. নজরুল ইসলাম খোকনের বিরুদ্ধে বিআরটিএ’র হালিশহর এলাকার মোটরযান পরিদর্শক সাইফুর ইসলাম হুমকির অভিযোগ এনে থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করলে সেটির তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয় হালিশহর থানার উপ-পরিদর্শক সোহেল রানাকে।

সোহেল রানা তদন্তভার গ্রহণের পর আইন অনুযায়ী সমস্ত প্রক্রিয়া শেষে অভিযোগের বিবাদির থানার নাম-ঠিকানা যাচাই করেন। এমন খবর পেয়ে কথিত শ্রমিকনেতা মো. নজরুল ইসলাম খোকন ক্ষিপ্ত হয়ে মিথ্যা অভিযোগের তদন্ত ও হয়রানি করার অভিযোগ এনে উল্টো নগর পুলিশ কমিশনার ও থানায় অভিযোগ ঠুকে দেন সোহেল রানার বিরুদ্ধে।
চট্টগ্রাম অটোরিকশা-অটোটেম্পো শ্রমিক লীগের স্বঘোষিত অবৈধ কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. নজরুল ইসলাম খোকনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি, মারধর, হুমকিসহ বেশ কয়েকটি মামলা আছে নগরের বিভিন্ন থানায়।

জানতে চাইলে হালিশহর থানার উপ পরিদর্শক সোহেল রানা বলেন, ‘আমাকে থানা থেকে অভিযোগের তদন্তভার দেওয়া হয়েছে। অভিযোগ তদন্ত করতে গিয়ে আইনানুগ যা আনুষ্ঠানিকতা দরকার, সবই করেছি। কিন্তু হঠাৎ নজরুল ইসলাম খোকন আমার বিরুদ্ধে একটি মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করেন পুলিশ কমিশনার মহোদয়ের কাছে। তার বিপরীতে আমিও একটি জিডি করি তার বিরুদ্ধে।’

অভিযোগের বিষয়ে জানতে অবৈধ দখলদার কমিটির কথিত চট্টগ্রাম অটোরিকশা অটোটেম্পো শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. নজরুল ইসলাম খোকন এর মোবাইলে ফোন করলে ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। তাই তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

জাতীয় শ্রমিক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক আজম খসরু গণমাধ্যমকে বলেন, চট্টগ্রাম অটোরিকশা-অটোটেম্পো শ্রমিক লীগ নামের কোন সংগঠন জাতীয় শ্রমিক লীগের অন্তর্ভুক্ত নয়। এছাড়া চট্টগ্রামে এ নামের সংগঠন কারা চালান, এটিও তিনি জানেন না।

ওই জিডিতে উল্লেখ করা হয়, সংগঠনের নাম ভাঙিয়ে টাকা নেওয়া নজরুল ইসলাম খোকনের নেশা ও পেশা। তিনি বিভিন্ন সময় বিআরটিএ’র কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের বশে আনার জন্য পাঁয়তারা করেন। তার অনৈতিক প্রস্তাবে রাজি না হলে অফিসের ভেতরেই উচ্চবাক্য করেন, গালমন্দ করেন। এছাড়া তিনি আমাকে রাস্তায় একা পেয়ে গালমন্দ করেন ও দেখে নেওয়ার হুমকি দেন।

অভিযোগ আছে , এই কথিত শ্রমিকনেতা মো. নজরুল ইসলাম খোকনের কাছে জিম্মি ট্রাফিক পুলিশ ও বিআরটিএ কর্মকর্তারা। স্বার্থে আঘাত আসলেই দেন হুমকি, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে করেন অপ্রপ্রচার। থানায় বানোয়াট অভিযোগ দিয়ে করেন হয়রানি। সম্প্রতি তার এমন রোষানলের স্বীকার হয়েছেন এক পুলিশ ও বিআরটিএ কর্মকর্তা।

গত ২০শে জানুযারী চট্টগ্রাম অটোরিকশা-অটোটেম্পো শ্রমিক লীগের বৈধ কমিটির সভাপতি উজ্জ্বল ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ ওসমান গণি
সিএমপি কমিশনার বরাবরে অভিযোগ দেন।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, নজরুল ইসলাম খোকন গং পেশাদার চাঁদাবাজ, ধান্ধাবাজ শ্রেণির লোকজন নিয়ে সিন্ডিকেট গঠন করে শ্রম আইন, বিধি ও সংগঠনের গঠনতন্ত্র পরিস্থী, পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের প্রসিকিউশন শাখা ও বিআরটিএ কার্যালয়সহ বিভিন্ন দপ্তর থেকে অনৈতিক সুবিধা আদায়ের অপকৌশলে তার নিজ নামে ব্যবহৃত Nazrul Islam Khokon ফেইজবুক ফেইজে চট্টগ্রাম অটোরিকশা অটোটেম্পো শ্রমিক লীগ রেজিঃ নং চট্ট ১৪৬৯ এর বেআইনীভাবে সাধারণ সম্পাদকের পদ পদবী ব্যবহার করে অপপ্রচারে লিপ্ত থেকে অনৈতিক ফায়দা হাসিলে সংগঠন তথা শ্রমিক স্বার্থ পরিপন্থি কর্মকান্ডে লিপ্ত রয়েছে। এ সকল বেআইনী কর্মকান্ডে সাধারণ শ্রমিকদের মাঝে বিভাজনে শ্রম অসন্তোষে সড়ক পরিবহন খাতে নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি সম্ভাবনা বিধায় উল্লেখিত ব্যক্তি একাধিক মামলার আসামী মামলাবাজ সংঘবদ্ধ চক্রের অতীত রেকর্ড বিবেচনায় নিয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য দাবী জানান

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on linkedin
LinkedIn
Share on email
Email

সম্পকিত খবর